প্রোগ্রামিং এর ধারণা আল্লাহর অস্তিত্বের সাক্ষ্য দিচ্ছে।

Published June 3, 2012 by islamvalley

আমারা প্রায় সবাই কিছুনা কিছু প্রোগ্রামিং জানি এবং এমন কিছু বানাতে পারি যা আমাদের ইচ্ছেমতো চলবে। আমরা যদি একটা সফটওয়্যার বানাই তবে আমাদের নির্ধারিত আদেশ মেনে চলবে। এ সফটওয়্যারগুলো অনেক সময় ব্যাবহারকারিদেরদের কাস্টোমাইজ বা নিজের মতো করে সাজানোর সুবিধা দেয়। যেমন খুব সরল একটা উদাহরণ দিইঅ আমারা পিসিতে একটা ডকুমেন্ট লিখতে পারি। ইচ্ছেমতো এটার রং, ফন্ট, আকার বদলাতে পারি। আমার অনেক সুন্দর-দর্শন একটা ফাইল বানিয়ে ফেলতে পারি। অথবা চাইলে পিডিএফ ফাইলও সুন্দর করে বানাতে পারি। কিন্তু এই বানানোর কৃতিত্বটা কি আমাদের?
মোটেই না। বরং যে লোক ওয়ার্ডফাইল সফটওয়্যার বা পিডিএফ রূপান্তরক বানিয়েছে এটা তারই কৃতিত্ব। এ কারণেই আমাদের ব্যাবহারকরীদের সীমাবদ্ধতা রয়ে যায়। আমরা চাইলেও এমন কাস্টোমাইজ করতে পারবোনা যা সফটওয়্যার এর মূল নির্মাতা সুযোগ করে রাখেনি।

এছাড়া আমরা css, html, php ইত্যাদি ব্যাবহার করে অপূর্ব ওয়েবসাইট বানাতে পারি। কিন্তু এই বানানোর কুতিত্বও আমাদের নয় বরং তাদের যারা এই ভাষাগুলো উদ্ভাবন করেছে।

আমরা দৈনন্দিন অনেক যন্ত্রপাতি ব্যাবহার করে থাকি যেগুলো আবিষ্কার করেছেন প্রতিভাবান বিজ্ঞানীরা। সেগুলোও আমারা ইচ্ছামতো এদিকসেদিক করে ব্যাবহার করতে পারি। যেমন আমরা একটা টিভি সেটের ভলিউম বাড়াতে-কমাতে পারি। কিন্তু এতদূর বাড়াতে পারিনা যার সুযোগ নির্মাতা রাখেনি। টিভি এখানে তারা নির্মাতার দেয়া নিয়ম মেন চলে।

এখন একটা ভাবা যাক।
যখন একটা টিভি বানানো হলো, এটা কেন টিভি হলো কেন একটা গাড়ি হলোন?
উত্তর হলো ঐ মূল প্রক্রিয়াটাও প্রকৃতির একটা নিয়ম মেনে চলে যা নির্ধারণ করে দিয়েছেন আল্লাহ। মানুষ প্রকৃতির নিয়মকে কাজে লাগিয়ে একটা যন্ত্র বানিয়ে ফেলল। তাই বলে সেটার কৃতিত্ব মানুষের নয় বরং সেই আল্লাহর যাঁর দেওয়া নিয়ম মেনে চলেই তাকে যন্ত্রটা বানাতে হয়েছিল। আর যন্ত্র ঐ নিয়ম মেনে চলে বলেই যখন টিভি হবার উপযোগী প্রক্রিয়া চালানো হলো তখন সেটা টিভিই হলো, গাড়ি হলোনা।

মানুষের তৈরি বিভিন্ন কাস্টোমাইজেবল সফটওয়্যারে যেমন সীমাবদ্ধ কিছু সুবিধা থাকে তেমনি আল্লাহর প্রোগ্রামকৃত এই পুরো মহাবিশ্বের নিয়ম কাজে লাগিয়ে কিছু যন্ত্রপাতি বানানো গেলেও তারও একটা সীমা আছে যা আমরা লংঘন করতে পারিনা।

যেমন আমরা কোন অবিরাম-গতি যন্ত্র বানাতে পারিনা যেটা ইনপুট না নিয়েই অবিরাম আউটপুট দিয়ে যাবে। আমারা জানি মহাবিশ্ব ধ্বংস হয়ে যাবে। আমারা সেটা ঠেকাতে পারবোন। বিজ্ঞান সেটা স্বীকার করেই ফেলেছে। আমরা জানি মহাবিশ্বের সকল শক্তির পরিমাণ নিদির্ষ্ট ও অপরিবর্তনীয়। শক্তি বাড়ানো, কমানো যায়না। শুধু রূপান্তর করা য়ায় মাত্র।
অর্থ্যাৎ আল্লাহ আমাদের শক্তি রূপান্তর করবার সুবিধা দিয়েছেন কিন্তু বাড়ানো, কমানোর সুবিধা দেননি।

এই যে এতসব এতসব নিয়ম, বিজ্ঞানের ভাষায় এমন অপূর্ব গঠনমূলক বিধি ও নিয়ম আপনাআপনি গড়ে উঠতে পারেনা। প্রকৃতপক্ষে এসব নিয়ম-বিধান আল্লাহই নির্ধারিত (programmed ) করে রেখেছেন।
আল্লাহ আমাদের বোঝার তৌফিক দিন, আমীন।

Advertisements

Share your comment

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: